সরকারে 'রাসেলস ভাইপার' ঢুকেছে: ব্যারিস্টার সুমন

Jun 25, 2024 - 14:30
 0  0
সরকারে 'রাসেলস ভাইপার' ঢুকেছে: ব্যারিস্টার সুমন

সরকারে ‘রাসেলস ভাইপার’ ঢুকে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন হবিগঞ্জ-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তিনি বলেন, "সাপ এলে প্রকৃতি ব্যস্ত থাকে। এই বেজিই সাপ নিয়ন্ত্রণ করে। এই সরকারের বিভিন্ন জায়গায় রাসেলস ভাইপার আছে কিন্তু সাপ ধরার জন্য যথেষ্ট নয়।

সোমবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের সমালোচনা করলেও প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করেন স্বতন্ত্র এই সংসদ সদস্য। তিনি বলেন, "স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হলেও সংসদ নেতার প্রতি আমার আস্থা আছে। আমার বিশ্বাস তিনি সব দুর্যোগের মধ্য দিয়ে আমাদের দেখবেন। প্রধানমন্ত্রী এমন একটি পাখি যে ডালে বসে থাকে, কিন্তু তার আস্থা নেই। শাখার ওপর তার ভরসা বিশ্বব্যাংকেরও।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, 'বাজেটের আকার ও ধরন নিয়ে আমার বিশ্বাসের অভাব রয়েছে। তবে এই বাজেট বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থার কমতি নেই। আমি বিশ্বাস করি যে বাজেট যাই হোক না কেন তিনি আমাদেরকে কোনো না কোনোভাবে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

সুমন বলেন, 'শ্রীলঙ্কা যখন দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল, তখন অনেকেই বলেছিল বাংলাদেশ সময়ের ব্যাপার। বাংলাদেশ দেউলিয়া হয়ে যাবে। পাকিস্তানের সময় ও ভারতের চাপে। তখনও বলা হয়েছিল। কিন্তু কোনো সময়ই আমাদের বাধ্য করা যায়নি। ভারত-পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার সম্পদ কোনো অংশেই আমাদের থেকে কম নয়। তবে একটা জায়গায় তাদের অভাব ছিল, শেখ হাসিনা তাদের নেই।

সরকারের উদ্দেশে এমপি সুমন বলেন, 'সরকারকে কিছুটা চাপ নিতে হবে। আমি এই চাপ সম্পর্কে একটি পরামর্শ দিতে চাই. এ বাজেটে ঋণ নিয়ে উন্নয়ন ব্যয় মেটানো হবে। আড়াই লাখ কোটি টাকা ঋণ নেওয়া হবে। ব্যাংক থেকে নেওয়া হবে দেড় লাখ কোটি টাকা।

সংসদ সদস্যদের গাড়ি কেনার প্রস্তাবিত কর বিবেচনার আহ্বান জানিয়ে সুমন বলেন, সুদের হার বাড়ানো হয়েছে। এটা প্রশংসনীয়। আর্থিক সংকোচন নীতি গ্রহণ করা হলে এটি একটি ভাল উদ্যোগও। কিন্তু সঙ্কুচিত হতে হতে আমাদের সংসদ সদস্যদের ওপরও সংকোচন শুরু হয়েছে। আমাদের গাড়ির উপর 20 শতাংশ ট্যাক্স। আমাদের কর মওকুফ করার কথা থাকলেও এখন ২০ শতাংশ কর দিতে হবে।'

পরশু গাড়ি পেলাম। আমার কাছ থেকে কোনো ট্যাক্স নেওয়া হয়নি। আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলব, করমুক্ত গাড়ি পেয়েছি। আমার অন্যান্য সহকর্মীদের জন্য এটি বৈষম্য। তারপরও যদি দেশের স্বার্থে নিতে চান, তাহলে বাজেটে পাস হলে আমার ২০ শতাংশ করের অংশ এনবিআরে জমা দেব। এটা হতে পারে না যে আমি যা পাই তা আমার সহকর্মীরা পাবেন না,' তিনি যোগ করেন।

বাজেট ঋণ প্রসঙ্গে এমপি সুমন বলেন, "এমপি হওয়ার পর এক কোটি টাকা দিয়ে একটি গাড়ি কিনেছি। সাউথইস্ট ব্যাংক থেকে ৫০ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছি। এসব ঋণের সুদ আমাদের রাত জেগে রাখে। শুধু তিনিই। আড়াই লাখ কোটি টাকার ঋণের বোঝা কীভাবে মাথার ওপর থাকবে, তা জানেন প্রধানমন্ত্রী।

ব্যারিস্টার সুমন আরও বলেন, 'আমাদের সবচেয়ে বড় চাপ বৈদেশিক রিজার্ভ। রিজার্ভের অবক্ষয় একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এই সংসদে যে বাজেট দেওয়া হয়েছে। এই সরকার ও বাজেটকে ব্যর্থ করার আরেকটি বাজেট আছে। এই বাজেটের ব্যর্থতার জন্য নেতৃত্ব দিচ্ছেন ড. মুহাম্মদ ইউনূস। তিনি চান তার নেতৃত্বে সরকার গঠিত হোক। ডলার আছে। সেই ডলার চায় প্রধানমন্ত্রীর বাজেট ব্যর্থ হোক। ডলারের বিপরীতে বিনিময় হার সম্প্রতি 7 টাকা অবমূল্যায়িত হয়েছে। এটি পেমেন্টের ব্যালেন্স মেটানো আরও কঠিন করে তুলবে। এটা একটা বড় চাপ।'

সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো দুর্বল হয়ে পড়েছে মন্তব্য করে সাইদুল হক বলেন, দুদক একজন ভদ্রলোককে ধরতে পারেনি। এনবিআর ধরতে পারেনি। ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ইউনিট ধরতে পারেনি বাংলাদেশ। আর মতিউর রহমান নামে একটি ছাগলকে ধরেছে এনবিআর। ছাগল না এলে এই লোকটাকে সে চিনত না। ছাগলের ঘটনা এবং ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার কারণে... বেনজির কেলেঙ্কারির ঘটনায় সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ। তিনি কত বড় হয়েছেন তা মন্ত্রণালয় জানত না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানতেন না। এই শিশুটি এত বড় হয়েছে, সুযোগ পেলে পুরো গোপালগঞ্জ কিনে নিয়ে যেত। তারপরও আমি বলব, এই মন্ত্রণালয় তার দায় এড়াতে পারে না।

What's Your Reaction?

like

dislike

love

funny

angry

sad

wow