সর্বোচ্চ করদাতা 'হাকিমপুরী জর্দা' এর মালিক কাউছ মিয়া মারা গেছেন

Jun 25, 2024 - 16:36
 0  1
সর্বোচ্চ করদাতা 'হাকিমপুরী জর্দা' এর মালিক কাউছ মিয়া মারা গেছেন

দেশের শীর্ষ করদাতা এবং হাকিমপুরী জর্দা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক ড. কওছ মিয়া মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তিনি মারা যান। তিনি স্ত্রী, আট ছেলে ও আট মেয়ে রেখে গেছেন।

কাউছ মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর মিয়া তার বাবার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার বাদ জোহর ঢাকার আরমানিটোলা মাঠে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে তাকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে।

গুলশান-বনানী বা মতিঝিলের কাউচ মীরে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত চেম্বার নেই। পুরান ঢাকার আগা নবাব দেউরী রোডে হাকিমপুরী জর্দা কারখানায় তার 'চেম্বার'। গুলশান-বনানী, মতিঝিলের ডকসাইটে ব্যবসায়ীদের পেছনে ফেলে প্রতিবছরই সবচেয়ে বেশি করদাতা হয়েছেন পুরান ঢাকার এই ব্যবসায়ী। 2008 সাল থেকে টানা 15 বছর ধরে তিনি সর্বোচ্চ করদাতা।

কাউছ মিয়া 1958 সালে কর দেওয়া শুরু করেন। 2019 সালে এনবিআরের একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, 'আগে আমি এখানে-ওখানে টাকা রাখতাম। এতে অনেক সমস্যা ও ঝুঁকি ছিল। 1958 সালে, আমি আমার প্রথম কর পরিশোধ করে "মুক্ত" হয়েছিলাম। তারপর সব টাকা ব্যাংকে রাখতে লাগলাম। আমি খাতা পরিষ্কার রাখলাম।

এর আগে 1967 সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের এক নম্বর করদাতা হয়েছিলেন কাউছ মিয়া। হাজী মোহাম্মদ কাউছ মিয়া চাঁদপুর সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে চাঁদপুর জেলা শহরের পুরান বাজারে ব্যবসা করেন। পরে হাজীগঞ্জ, সেখান থেকে নারায়ণগঞ্জ ও পুরান ঢাকার আরমানি টোলায় ব্যবসা করেন। হাকিমপুরীর জর্দা ব্যবসা ছাড়াও তার বিভিন্ন ব্যবসা ছিল। 22 বছর বয়সে ব্যবসা শুরু করেন এবং টানা 71 বছর একা ব্যবসা চালিয়ে যান।

What's Your Reaction?

like

dislike

love

funny

angry

sad

wow